আজ শনিবার 6:26 pm11 July 2020    ২৭ আষাঢ় ১৪২৭    20 ذو القعدة 1441
For bangla
Total Bangla Logo

স্বপ্নধরার আবাসন মেলা, স্বপ্নের ঠিকানা খুঁজছেন ক্রেতারা

সালমান ফিদা, ঢাকা

টোটালবাংলা২৪.কম

প্রকাশিত : ১২:১০ পিএম, ১৬ জুলাই ২০১৯ মঙ্গলবার | আপডেট: ০২:৪৫ পিএম, ২৮ জুন ২০২০ রবিবার

স্বপ্নধরা রিয়েল এস্টেট ল্যান্ড প্রজেক্ট

স্বপ্নধরা রিয়েল এস্টেট ল্যান্ড প্রজেক্ট

রাজধানীর মতিঝিলের হোটেল পূর্বাণীতে সোমবার থেকে চলছে স্বপ্নধরা আবাসন মেলা। চলবে বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯ রাত ৯টা পর্যন্ত। স্বপ্নধরা এ্যাসেটস ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড আয়োজিত এ মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টায় শুরু হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে হোটেল পূর্বাণীতে স্বপ্নধরার মেলায় গিয়ে দেখা গেছে, দেশ-বিদেশের বহু আগ্রহী প্লট ও ফ্ল্যাট ক্রেতারা দারুণ আগ্রহ নিয়েই স্বপ্নধরার আবাসন প্রজেক্টে নিজেদের স্বপ্নের ঠিকানা খুঁজে নিচ্ছেন। মেলা উপলক্ষে তারা স্বপ্নধরার বিশেষ অফার এবং সুযোগ-সুবিধাও জেনে-বুঝে নিচ্ছেন। স্বপ্নধরার সেলস এন্ড মারকেটিং এজিএম আবদুল্লাহ আল মামুন টোটালবাংলাটুয়েন্টিফোরডটকম প্রতিবেদককে বলেন, আল-হামদুলিল্লাহ, আমাদের মেলায় ভালো সাড়া পড়েছে। আগ্রহী ক্রেতাদের জন্য মেলা উপলক্ষে আমরা বিশেষ ছাড় দিচ্ছি। মেলা শেষে এ ছাড় থাকবে না। আমাদের আবাসন মেলায় প্রথম ৫০টি প্লটের জন্য মোবাইল সেট ফ্রি দেওয়া হবে। তিনি বলেন, ঢাকা-মাওয়া ৬ লেন বিশিষ্ট মহাসড়কের সাথেই স্বপ্নধরা, শাখা সড়কে নয়। আমাদের প্রজেক্ট পরিবেশ অধিদপ্তর কর্তৃক ইআইএ সনদপ্রাপ্ত একমাত্র আবাসন প্রকল্প। এখানে শতাংশ প্রতি ৩০৩০ টাকার কিস্তিতে কর্ণার প্লট দেওয়া হচ্ছে।

 

মেলায় স্বপ্নধরায় নিজের স্বপ্নের ঠিকানা খুঁজতে এসেছেন সিলেটের হবিগঞ্জ থেকে আহসান সারওয়ার দম্পতি। তিনি টোটালবাংলাটুয়েন্টিফোরডটকম প্রতিবেদককে বললেন, স্বপ্নধরায় প্লট নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আরও আগ থেকেই একটি ঠিকানা খুঁজছিলাম। স্বপ্নধরার বিষয়েও অনেক খোঁজ-খবর নিয়েছি। প্রজেক্টও গিয়ে দেখে এসেছি। আজ এখানে মেলায় এসেছি প্লট বুকিং দেওয়ার জন্য। দোয়া করবেন।

 

 

প্রকৃতি ও প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় অবিশ্বাস্য যোগাযোগ ব্যবস্থার নিশ্চয়তায়, রাজউক ঝিলমিল প্রকল্পের কাছেই ৩০০ ফিট ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক সংলগ্ন গড়ে উঠছে এক যুগান্তকারী আবাসন প্রকল্প "স্বপ্নধরা"।

 

 

অসাধারণ নিসর্গ সুন্দর প্রাকৃতিক পরিবেশে নিজের ও পরিবারের জন্য একটি নিরাপদ আবাসন প্রত্যেকের যুগ যুগান্তরের চাওয়া । মানব সৃষ্টির শুরু থেকেই মানুষ এক টুকরো মাথা গোঁজার ঠাঁইয়ের জন্য গড়ে তুলছে আবাসন ব্যবস্থা। সভ্যতার পট পরিবর্তনে মানুষ গড়ে তুলে শিল্প, কারখানা ও বসবাস উপযোগী নগরী। মানুষ তার জীবিকার তাগিদে হয় নগরমুখী। আর তারই প্রেক্ষিতে গড়ে উঠেছে আধুনিক সুবিধা সম্বলিত রাজধানী ঢাকা। শ্যামল বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরে একটি স্বপ্ন-সুখের নীড় গড়তে চাই একখ- নিষ্কণ্টক জমি। অর্থনৈতিক সীমাবদ্ধতা ও সঠিক পরিকল্পনার অভাবে ঢাকা শহরের আবাসিক সংকট যেমন তীব্র হয়েছে, তেমনি এই প্রিয় শহর দিনে দিনে হয়ে উঠছে কংক্রিটের জঞ্জাল।

 

 

শব্দ দূষণ, গাড়ির কালো ধোঁয়ার ক্ষতিকর প্রভাব ও যানজটে বিধ্বস্ত ঢাকাকে ভবিষ্যতের পরিকল্পিত নগরী হিসেবে গড়ার লক্ষ্যে রাজউক গড়ে তুলছে ”ঝিলমিল”প্রকল্প। এই ঝিলমিল প্রকল্পের সন্নিকটেই গড়ে উঠছে একটি আধুনিক, পরিচ্ছন্ন ও সু-পরিকল্পিত নগরী ’স্বপ্নধরা’।

 

 

নগর জীবনের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা সমৃদ্ধ, পরিবেশ বান্ধব এলাকায় বসবাস করার ইচ্ছা সকলের। কিস্তু অর্থনৈতিক সীমাবদ্ধতার কারণে সাধ ও সাধ্যের সমন্বয় ঘটানো যখন অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে, তখন স্বল্প আয়ের সচেতন মানুষের এই চিরন্তন চাওয়াকে পাওয়াতে পরিণত করতে গড়ে উঠছে ’স্বপ্নধরা’।

 

 

জমির মূল্যের ঊর্ধ্বগতি সত্ত্বেও ”স্বপ্নধরা এ্যাসেটস্ ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড” নিষ্ঠা, একাগ্রতা, আত্মবিশ্বাস, সততা ও নিরলস প্রচেষ্টার মাধ্যমে নিয়ে এলো এক অতুলনীয় অনুপম সমাধান, যাতে রাজধানী ঢাকার সন্নিকটে আপনিও অতি সহজেই হতে পারেন একখ- জমির গর্বিত মালিক।

 

ক্রমবিকাশমান ঢাকা শহরের জমির অপ্রতুলতা ঢাকাকে করেছে কংক্রিটের জঙ্গল, যেখানে প্রকৃতি সম্পূর্ণরূপে উপেক্ষিত। এ সবকিছুকে দূরে ঠেলে প্রকৃতির সবুজকে ধারণ করে আমরা গড়ে তুলছি আধুনিকতার বুনিয়াদে এক ব্যতিক্রমধর্মী প্রকল্প ’স্বপ্নধরা’।

 

 

শংকাহীন স্বপ্নপূরণের শতভাগ নিশ্চয়তায় গড়ে উঠছে ”স্বপ্নধরা”।


প্রস্তাবিত ৩০০ ফিট ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের পাশেই প্রকৃতি ও প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় অসাধারণ যোগাযোগব্যবস্থার নিশ্চয়তায় এক যুগান্তকারী প্রকল্প ’স্বপ্নধরা’।



স্বপ্নধরা বাংলাদেশের রিয়েল এস্টেট জগতে প্রথম ও একমাত্র ল্যান্ড প্রজেক্ট, যেখানে প্রকৃত অর্থেই প্রতিটি প্লট একটি কর্ণার প্লট। বর্তমানে রয়েছে ৫ (পাঁচ)টি সরকারি চলমান সড়কের অবিচ্ছেদ্য সংযোগ, যা যুগান্তকারী যোগাযোগ ব্যবস্থায় অপ্রতিদ্বন্দ্বী।

 

স্বপ্নধরার করপোরেট অফিস : গৃন স্কয়ার, হাউজ নং ১/বি (লেবেল-৩), রোড নং ৮, গুলশান ১, ঢাকা ১২১২। ফোন ৮৮৩২০০৬, ৮৮৩১৭০৬। ওয়েবলিংক : http://shopnodhora.com