আজ সোমবার 9:39 am13 July 2020    ২৮ আষাঢ় ১৪২৭    22 ذو القعدة 1441
For bangla
Total Bangla Logo

শরৎ মানেই দুর্গতিনাশিনী দেবি দুর্গা

নিজস্ব প্রতিনিধি, বরগুনা

আলজাজিরাবাংলা.কম

প্রকাশিত : ০৯:০২ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬ মঙ্গলবার | আপডেট: ০১:৪৮ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ বুধবার

শরৎ মানেই দুর্গতিনাশিনী দেবি দুর্গা

শরৎ মানেই দুর্গতিনাশিনী দেবি দুর্গা

দেবী দুর্গার আগমনকে কেন্দ্র করে বরগুনার প্রতিটি মন্দিরে তৈরি করা হচ্ছে প্রতিমা। মণ্ডপগুলোতে ব্যস্ত সময় পার করছেন শিল্পীরা। বরগুনার সবগুলো মন্দিরেই প্রতিমা গড়ার কাজ প্রায় কাজ শেষ করে ফেলেছেন শিল্পীরা। এখন চলছে রংয়ের কাজ।

প্রতিমা শিল্পীরা জানান, প্রতি বছরের মতো এবারও তারা ব্যস্ত সময় পার করছেন। বেশিরভাগ মন্দিরে মাটির কাজ প্রায় শেষ। এখন শুধু রং তুলির ছোঁয়া বাকি। প্রত্যেকেই একাধিক প্রতিমা গড়ার কাজ করছেন। ভেতরে ভেতরে তাদের মধ্যে আছে ভালো প্রতিমা গড়ার প্রতিযোগিতাও।

বরগুনার সনাতন সম্প্রদায়ের লোকজন জানান, বছর ঘুরে আবার এসেছে শরৎ। আর মাত্র কয়েকদিন পরেই দেবী দুর্গার আগমন ঘটবে মর্ত্যলোকে। দেবী দুর্গার আগমনে পরাজয় হবে অসুরের। পৃথিবীর সব অশুভ শক্তি বিলীন হবে। পৃথিবীতে নেমে আসবে শান্তি। তাই দেবীকে বরণ করে নিতে তারা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন।

বরগুনা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি সুখরঞ্জন শীল বলেন, “এ বছর জেলায় ছোট বড় মিলিয়ে ১৪৩টি মন্দিরে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। প্রত্যেকটি মন্দিরে শৃঙ্খলা বজায় রেখে সুন্দর পরিবেশে পূজা উৎযাপন হবে আশা করছি।”

বরগুনার পুলিশ সুপার বিজয় বসাক বলেন, “প্রতিটি মন্দিরে আনসার ও পুলিশের টিমসহ সব ধরনের নিরাপত্তা দিতে প্রস্তুত পুলিশ। এ বছর প্রতিটি মন্দিরে বাড়তি নিরাপত্তার জন্য সিসি ক্যামেরা বসানোর পরামর্শ দেয়া হয়েছে।”

ধর্ম-এর সর্বশেষ খবর