আজ বুধবার 12:47 am20 September 2017    ৪ আশ্বিন ১৪২৪    27 ذو الحجة 1438
For bangla
Beta Total Bangla Logo

৫০ বছরে বিশ্বের বড় ধর্ম হবে ইসলাম, ৫০ সালে বেশি মুসলিম ইনডিয়ায়

সাদেকা হাসান

টোটালবাংলা২৪.কম

প্রকাশিত : ১১:৩২ পিএম, ৩ মার্চ ২০১৭ শুক্রবার

ইনডিয়ান মুসলিমদের জমায়েতের একটি দৃশ্য। ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ হবে ইনডিয়া

ইনডিয়ান মুসলিমদের জমায়েতের একটি দৃশ্য। ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ হবে ইনডিয়া

বিশ্বে মুসলিম জনসংখ্যা বাড়তির হার সারাবিশ্বের জনসংখ্যা বাড়তির হারের চেয়েও বেশি। ২০৭০ সাল নাগাদ তা বিশ্বের বৃহত্তম ধর্মে পরিণত হবে। আমেরিকান গবেষণা সংস্থা পিউ রিসার্চ সেন্টারের এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০৫০ সালের মধ্যে মুসলিম জনসংখ্যা ৭৩ শতাংশ বাড়বে। খৃস্টান ধর্মাবলম্বীদের সংখ্যা বাড়বে ৩৫ শতাংশ। সম্প্রতি টেলিগ্রাফ এই খবর প্রকাশ করেছে।

প্রতিবেদন বলছে, একই সময়ে পৃথিবীর মোট জনসংখ্যা ৩৭ শতাংশ বাড়বে। ইউরোপের মোট জনসংখ্যার ১০ শতাংশ মুসলিম হবে।

 

আরও পড়ুন-ট্রাম্প ও মিডিয়ার মধ্যে প্রকাশ্যে যুদ্ধ চলছে : জয় কার হবে?



২০১০ সালে পৃথিবীতে মুসলিমদের সংখ্যা ছিল ১৬০ কোটি। খৃস্টানদের সংখ্যা ছিল ২১৭ কোটি। ২০৫০ সাল নাগাদ এ সংখ্যা হবে যথাক্রমে প্রায় ২৭৬ কোটি ও ২৯২ কোটি। এরপর একই হারে দুই ধর্মাবলম্বীর সংখ্যা বাড়তে থাকলে ২০৭০ সালের মধ্যে বিশ্বের বৃহত্তম ধর্ম হবে ইসলাম।

২০৫০ সালের মধ্যে নাস্তিক, অজ্ঞেয়বাদী এবং অধার্মিকের হার পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার ১৬ দশমিক ৪ শতাংশ থেকে ১৩ দশমিক ২ শতাংশে নেমে আসবে। ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকায় এ হার বাড়বে বলে প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে।

 

আরও পড়ুন-ফিলিসতিন রাষ্ট্রকে জবাই করতে চায় আমেরিকা



বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষের সন্তান জন্মদান হার এ গবেষণায় বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। এতে দেখা যাচ্ছে, গড়ে প্রত্যেক মুসলিম নারীর ৩টির বেশি (৩.১) সন্তান রয়েছে; যেখানে প্রত্যেক খৃস্টান নারীর রয়েছে ৩টির কম (২.৭) সন্তান।

 

২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ হবে ইনডিয়া

পিউ রিসার্চ সেন্টারের প্রতিবেদন থেকে আরও জানা গেছে, ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মুসলিম অধ্যুষিত দেশে পরিণত হবে ইনডিয়া। বর্তমানে খৃস্টান ধর্মের পর ইসলাম বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্ম। এই মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল প্রধান ধর্মও ইসলাম।

পিউ রিসার্চ বলছে, ২০১০ সালে বিশ্বে মুসলিম জনগোষ্ঠীর পরিমাণ ছিল ১৬০ কোটি; যা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ২৩ শতাংশ। বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বড় মুসলিম দেশ ইন্দোনেশিয়া।

এর আগে ২০১৫ সালে পিউ রিসার্চের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আগামী দশকে বিশ্বে জনসংখ্যা ৩৫ শতাংশ বাড়বে বলে ধারণা করা হলেও এর মধ্যে মুসলিম জনসংখ্যা বাড়বে ৭৩ শতাংশ। এর ফলে বিশ্বে মুসলিম জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ২৮০ কোটিতে পৌঁছাতে পারে বলে প্রত্যাশা করা হয়।

 

আরও পড়ুন-ইসলামসহ তিন ধর্মর বিভিন্ন বিষয়ে সংস্কার উদ্যোগ ইনডিয়ায়


গত বছরের অক্টোবরে আমেরিকান এই গবেষণা প্রতিষ্ঠান জানায়, ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের জনসংখ্যা বাড়তির হারের চেয়ে মুসলিমদের সংখ্যা দ্বিগুণ হারে বাড়বে। এই গবেষণা প্রতিবেদনে ২০১০ থেকে ২০৫০ সালের মধ্যে বৌদ্ধ, খৃস্টান, হিন্দু, ইহুদি, মুসলমান, লোক ধর্ম ও অন্য ধর্মের আকার ও পরিবর্তনের চিত্র তুলে ধরা হয়।

গবেষণায় অনেক মানুষকে ধর্মের ভবিষ্যৎ সম্পর্কে ভবিষ্যৎবাণী করতে বলা হয়েছিল। এই প্রথম বিশ্বের বিভিন্ন গোষ্ঠীর অনেক মানুষের আনুষ্ঠানিক বয়স, জন্ম-মৃত্যুহার, মাইগ্রেশন এবং ধর্ম পরিবর্তনের তথ্য ব্যবহার করে গবেষণা করা হয়।

বিশ্বের প্রসারমান ধর্ম হতে ইসলামকে সহায়তা করছে মুসলিমদের জন্মহার। আমেরিকান এই গবেষণা প্রতিষ্ঠান ২০১০ সালের এক গবেষণায় জানায়, বিশ্বের ৩৪ শতাংশ মুসলিমের বয়স ১৫ বছরের নিচে। ৩০ শতাংশ হিন্দু ও ২৭ শতাংশ খৃস্টানের বয়স ১৫ বছরের নিচে।