Total Bangla Logo
For bangla আজ শুক্রবার 2:43 pm
28 July 2017    ১৩ শ্রাবণ ১৪২৪    04 ذو القعدة 1438

হাফেজ্জী হুজুরকে নিয়ে ষড়যন্ত্র, প্রতিবাদের আগুন জ্বলছে

সুফিয়ান মাক্কি, নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা

টোটালবাংলা২৪.কম

প্রকাশিত : ০৮:১১ পিএম, ৮ ডিসেম্বর ২০১৬ বৃহস্পতিবার

তওবার রাজনীতির প্রবর্তক আল্লামা মোহাম্মদুল্লাহ হাফেজ্জী হুজুর (রহ.)। ছবি : ইন্টারনেট

তওবার রাজনীতির প্রবর্তক আল্লামা মোহাম্মদুল্লাহ হাফেজ্জী হুজুর (রহ.)। ছবি : ইন্টারনেট

দেশের বিভিন্ন স্থাপনা থেকে হজরত মোহাম্মদুল্লাহ হাফেজ্জী হুজুর (রহ.)-এর নাম মুছে ফেলা হচ্ছে। স্বাধীনতাবিরোধীদের তালিকায় মহান এই বুজুর্গের নামও ইতিমধ্যে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তওবার রাজনীতির প্রবর্তক, বাংলাদেশের কোটি কোটি ইসলামি জনতার প্রিয় ব্যক্তিত্ব মোহাম্মদুল্লাহ হাফেজ্জি হুজুরকে নিয়ে শুরু হয়েছে গভীর ষড়যন্ত্র। তাঁর বিরুদ্ধে শুরু হওয়া এই ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সজাগ হওয়ার ডাক দিয়েছে চরমোনাই পীরের দল ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এবং শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হকের অনুসারী দল বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বিবৃতি দিয়েছেন আরও অনেকেই।

 

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

 

টোটালবাংলা২৪ ডটকম-এ পাঠানো বিবৃতিতে যুগশ্রেষ্ঠ বুজুর্গ বিশ্ববরেণ্য আলেম হজরত হাফেজ্জী হুজুর (রহ.)-এর বিরুদ্ধে শুরু হওয়া চক্রান্তের খবরে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ। আজ (৮ ডিসেম্বর ২০১৬) এক বিবৃতিতে অধ্যক্ষ ইউনুছ বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের তালিকায় এদেশের গণমানুষের আস্থাভাজন ও শ্রদ্ধেয় ব্যক্তি হাফেজ্জী হুজুরের নাম অন্তর্ভুক্তিকরণ ইসলাম ও উলামায়ে কেরামের বিরুদ্ধে নতুন চক্রান্ত ও দূরভিসন্ধি এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। হজরত হাফেজ্জী হুজুর জালেমের বিরুদ্ধে মজলুমের পক্ষে আপসহীন ভূমিকা পালন করে গেছেন। কাজেই তাঁকে নিয়ে যে কোন চক্রান্ত দেশের ইসলামপ্রিয় ঈমানদার জনতা রুখে দাঁড়াবে।

 

তিনি যুদ্ধাপরাধী ও স্বাধীনতাবিরোধীদের তালিকা থেকে হজরত হাফেজ্জী হুজুরের নাম বাদ দেওয়ার দাবি জানান। বিভিন্ন স্থাপনা থেকে তাঁর নাম মুছে ফেলা থেকে বিরত থাকতে এবং ইতিমধ্যেই যেসব জায়গায় তাঁর নাম মুছে ফেলা হয়েছে, সেখানে নাম পুনঃস্থাপনে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। না হলে দেশের ঈমানদার জনতা হজরত হাফেজ্জী হুজুর (রহ.)-এর সম্মান রক্ষায় যে কোন ত্যাগের জন্য প্রস্তুত রয়েছেন।-প্রেস রিলিজ

 

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস

 

একই ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হক (রহ.)-এর অনুসারী দল বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক। তিনি বলেন, হজরত হাফেজ্জী হুজুর (রহ.) আলেম-উলামা ও দেশের ইসলামপ্রিয় জনতার আধ্যাত্মিক রাহবার ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখায় মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী হাফেজ্জী হুজুরকে মরণোত্তর সন্মাননা ক্রেস্ট দিয়েছেন। এরপরও হাফেজ্জী হুজুরকে স্বাধীনতাবিরোধী বলা উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

 

শায়খপুত্র বলেন, একটি গোষ্ঠী দেশে অশান্তি সৃষ্টির জন্য এভাবে নানা ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। তারা দেশের আলেম-উলামাদের সহ্য করতে পারছে না। আলেম-উলামাদের সুনাম-সুখ্যাতি নষ্ট করে জাতিকে ভ্রান্তিতে ফেলতে চাচ্ছে। তাঁর বিরুদ্ধে এ ধরনের ষড়যন্ত্র সেই প্রক্রিয়ারই ধারাবাহিক অংশ। এটি শুধু হাফেজ্জী হুজুর (রহ.)-এর বিরুদ্ধে নয়, সকল উলামায়ে কেরাম ও ইসলামি নেতার বিরুদ্ধেই গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। অবিলম্বে স্বাধীনতাবিরোধীদের তালিকা থেকে হাফেজ্জী হুজুর (রহ.)-এর নাম বাদ দিতে হবে। না হলে ষড়যন্ত্রকারী এবং সংশ্লিষ্ট সকলের বিরুদ্ধে কঠিন আন্দোলন গড়ে তুলা হবে।-প্রেস রিলিজ

 

মুফতি সাঈদ নূরের মুক্তি দাবি

 

একই বিবৃতিতে মানিকগঞ্জের গোবিন্দল মাদরাসার পৃন্সিপাল বিশিষ্ট আলেম হজরত মাওলানা মুফতি সাঈদ নূরের শর্তছাড়া মুক্তি দাবি করেছেন মাওলানা মাহফুজুল হক। তিনি বলেন, মাওলানা সাঈদ নূর একজন সুনামধন্য আলেম। তার নামে কোনো মামলা না থাকা সত্ত্বেও তাকে সন্দেহজনকভাবে থানায় ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের নামে অহেতুক নাজেহাল ও গ্রেফতার করা হয়। তিনি প্রশাসন ও সরকারের প্রতি আলেম-উলামাদের হয়রানি না করতে আহবান জানান। মুফতি সাঈদ নূরকে মুক্তি না দিলে আন্দোলনের মাধ্যমে তাকে মুক্ত করারও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।-প্রেস রিলিজ