আজ রবিবার 5:06 pm09 August 2020    ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭    19 ذو الحجة 1441
For bangla
Total Bangla Logo

ঢাকা সিটি দক্ষিণের প্রথম যৌথসভা

হাজির ছিলেন না মায়া-কামরুল

সালমান ফিদা

আলজাজিরাবাংলা.কম

প্রকাশিত : ০৭:৫০ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৪:৩১ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ বুধবার

হাজির ছিলেন না মায়া-কামরুল

হাজির ছিলেন না মায়া-কামরুল

শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের প্রথম যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনটির পূর্ণাঙ্গ কমিটির পর এটাই প্রথম যৌথ সভা।

সভায় এ দুজন উপস্থিত না থাকার কারণ নিয়ে সংগঠনটির বর্তমান নেতার প্রকাশ্যে কিছু না বললেও তাদের পদের অবনমন হওয়ার কারণে সভায় আসেননি বলে নিজেদের মধ্যে কানা-ঘোষা হচ্ছে।

যদিও অনেকে এটাকে যৌথ সভা বলতে নারাজ। তারা মনে করেন, এটা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির পরিচিত সভা। কারণ, এ সভায় পূর্ণাঙ্গ কমিটির সব সদস্য ও সব ওয়ার্ড-থানা কমিটির সভাপতিদের পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়েছে। সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হয়ে বেলা ৩টা পর্যন্ত চলে সভার কার্যক্রম।

সভায় দুই নেতার উপস্থিত না থাকার কারণ সম্পর্কে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বর্তমান কমিটির প্রথম সারির ৩ নেতা নিউজবাংলাদেশকে বলেন, মায়া ও কামরুল ভাই দুজনই চেয়েছিলেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের কমিটি অবিভক্ত রাখতে। একজন সভাপতি ও আরেকজন সাধারণ সম্পাদক হতে চেয়েছিলেন। পরে তারা বিভক্ত কমিটিতে থাকতে চাইলেও নেত্রী শেখ হাসিনা তাদের কার্যনির্বাহী কমিটিতে না রেখে উপদেষ্টা পরিষদে রাখেন। এ কারণে হয়তো তারা মনক্ষুণ্ণ হয়ে উপস্থিত হয়নি।

সর্বশেষ গত ২৭ আগস্ট ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের একটি আলোচনা সভায় অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন বিশেষ অতিথি হিসেবে। পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা পর কোনো অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না তিনি। গত ১০ এপ্রিলের পর থেকে মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া মহানগরের কোনো অনুষ্ঠানে উপস্থিত নেই।

মায়া-কামরুল ছাড়াও বিগত কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাজী সেলিম ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাঈদ খোকনের পদ অবনমন হয়েছে। তাদের বর্তমান কমিটির কার্যকরী সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে। তারাও শনিবারের যৌথ সভায় উপস্থিত ছিলেন না। সাঈদ খোকন দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। আর হাজী সেলিম অসুস্থ আছেন বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন হয়। এর সাড়ে তিন বছরেরও বেশি সময় পর এ পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত হলো। আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র অনুসারে তিন বছর পর পর সম্মেলন হওয়ার কথা।

গত ১২ সেপ্টেম্বর একাত্তর সদস্যবিশিষ্ট ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের উত্তর ও দক্ষিণের কমিটিতে দুটি করে সদস্য পদ খালি রেখে ঘোষণা করা হয়েছে। উত্তরের উপদেষ্টা পরিষদে ৯ জন এবং দক্ষিণের উপদেষ্টা পরিষদে ৬ জনকে সদস্য করা হয়েছে।

গত ১০ এপ্রিল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলনে মহানগর আওয়ামী লীগকে উত্তর ও দক্ষিণে বিভক্ত করে কমিটি ঘোষণা দেন। তখন শুধু সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয়েছিল।

রাজনীতি-এর সর্বশেষ খবর