আজ রবিবার 5:05 pm09 August 2020    ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭    19 ذو الحجة 1441
For bangla
Total Bangla Logo

ফয়জুল করীম বললেন

হকার উচ্ছেদের আগে পুনর্বাসনের দায়িত্ব রাষ্ট্রের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা

আলজাজিরাবাংলা.কম

প্রকাশিত : ০১:২৬ এএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৬ রবিবার | আপডেট: ০৭:৪১ পিএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৬ রবিবার

হকার উচ্ছেদের আগে পুনর্বাসনের দায়িত্ব রাষ্ট্রের

হকার উচ্ছেদের আগে পুনর্বাসনের দায়িত্ব রাষ্ট্রের

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম বলেছেন, হকাররা সবচেয়ে বেশি নির্যাতিত, নিপীড়িত, শোষণ ও বঞ্চনার শিকার। হকারদের কোন প্রকার নোটিশ ছাড়াই উচ্ছেদ করা হয়। ফলে তারা লাখ লাখ টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হয়। পুনর্বাসন ছাড়াই বারবার হকার উচ্ছেদ করে অত্যন্ত নির্মম আচরণ করা হয় তাদের সঙ্গে। হকার্স উচ্ছেদ করার আগে পুনর্বাসন বেশি জরুরি। হকারদের ওপর তাদের পুরো ফ্যামিলি নির্ভরশীল। কোন হকারই ফুটপাতে ব্যবসা করতে চায় না। একান্ত বাধ্য হয়েই রোদ-বৃষ্টির মাঝে কষ্ট করে ব্যবসা করে থাকে।


শনিবার সকাল ১০টায় পুরানা পল্টনের আইএবি মিলনায়তনে হকার্স শ্রমিক আন্দোলন-এর কেন্দ্রীয় কাউন্সিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। হকার্স শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি মুহাম্মদ ইমাম হোসেন ভুইয়া এতে সভাপতিত্ব করেন। পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ জাকির হোসেন।

ফয়জুল করীম বলেন, চাঁদাবাজি, নির্যাতন ও সন্ত্রাসমুক্ত পরিবেশে হকারদের ব্যবসা করার সুযোগ করে দেওয়া রাষ্ট্রের দায়িত্ব। হকারদের শ্রম নিয়ে পুঁজিপতিরা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হলেও হকাররা সারাজীবন হকারই থেকে যায়। ইসলামে সবচেয়ে বেশি শ্রমিকের মর্যাদা। ইসলামি শ্রমনীতি বাস্তবায়ন হলে শুধু মানুষ নয়, বনের পশুরা পর্যন্ত শান্তিতে থাকবে। সকল স্তরের হকার শ্রমিকদের ইসলামি শ্রমনীতি বাস্তবায়নে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ ডাক দিয়েছেন।

প্রধান আলোচক ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি মুহাম্মদ আশরাফ আলী আকন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, শ্রমিক আন্দোলনের সহ-সভাপতি মুহা. হারুন অর রশিদ, মুহাম্মদ আব্দুল মান্নান, মুহাম্মদ মহসিন, মুহাম্মদ শিমুল, মুহাম্মদ সোহেল, মুহাম্মদ শামসুল হক, মুহাম্মদ হযরত আলী মোল­া, মুহাম্মদ জাফর উল­াহ, তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ। এছাড়াও হকার্স শ্রমিক আন্দোলন ও ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন-এর নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

কাউন্সিলে প্রধান অতিথি স্টিয়ারিং কমিটির পরিচিতি ও ৩১ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদ-এর নাম ঘোষণা করেন।

আশরাফ আলী আকন বলেন, কৃষক-শ্রমিক ও মেহনতি মানুষকে কলুর বলদ হিসেবে ব্যবহার করে একটি মহল টাকার পাহাড় গড়ে তুলছে। দেশে সন্ত্রাসবাদ ও উগ্রতা আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েই চলছে। সমাজের সর্বত্র অশান্তির আগুন জ্বলছে। প্রচলিত আইন দিয়ে সমাজের চলমান এসব অস্থিরতা রুখা যাবে না। সকল অস্থিরতা থেকে মুক্তি পেতে ইসলামি শাসনের বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, যে শ্রমিক মাথার ঘাম পায়ে ফেলে কারখানায় কাপড় তৈরি করছে তার ছেলে-মেয়েরা কাপড় পরতে পারছে না। যে শ্রমিক লক্ষ কোটি মানুষের জন্য ওষুধ তৈরি করছে, তার ছেলে-মেয়েরা চিকিৎসায় ওষুধ পাচ্ছে না। তেমনি যে শ্রমিক কাগজ তৈরি করছে, খাতা এবং বই বাইন্ডিং করছে, টাকার অভাবে তার ছেলে-মেয়েরা ঠিকমত লেখাপড়া করতে পারছে না।

সভাপতির বক্তব্যে মুহাম্মদ ইমাম হোসেন ভুঁইয়া বলেন, শ্রমজীবি মানুষ আজও তাদের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি।



ইমাম-মুয়াজ্জিন হত্যা প্রমাণ করে, দেশে আইন-শৃঙ্খলার অবস্থার চরম অবনতি

এদিকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা সিটি দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজ আলম বলেছেন, দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ক্রমেই অবনতির দিকে যাচ্ছে। ফলে ইমাম ও মুয়াজ্জিনরাও এখন হত্যাকাণ্ডের শিকার হচ্ছে। সাধারণ মানুষ তো প্রতিনিয়ত খুন-গুম হচ্ছেই।

শনিবার বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা সিটি দক্ষিণ-এর উদ্যোগে দায়িত্বশীল তারবিয়াতে সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। আইএবি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত তারবিয়াতে আরো বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি আলহাজ্ আলতাফ হোসেন, সেক্রেটারি এবিএম জাকারিয়া, জয়েন্ট সেক্রেটারি আব্দুল আওয়াল, সাংগঠনিক সম্পাদক বাছির মাহমুদ, সহ-সাংগঠনিক এইচ এম সাইফুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক শেখ মুহাম্মাদ নুর-উন-নাবী, সহ-প্রচার হুমায়ুন কবির, সহ-দফতর ডা. শহিদুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, ফজলুল হক মৃধা, আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেন, সরকারদলীয় নেতা-কর্মীরা ভুয়া নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে ১০টাকা কেজি চাল বিতরণে অনিয়ম করছে। ফলে বাঞ্চিত হচ্ছে ভূমিহীন, দিনমুজুর ও হতদরিদ্র পরিবারগুলো।

তিনি বলেন, দলীয় নেতা-কর্মীদের তৈরি করা তালিকায় প্রায় ৫০ শতাংশ ধনী ব্যক্তি ও ভুয়া নাম-ঠিকানা অন্তর্ভুক্ত করে চাল চুরি চলছে। হতদরিদ্রদের মাঝে যারা চালের কার্ড পেয়েছে, তাদের চাল অন্যত্র বিক্রি করে তাদের হাতে নাম মাত্র টাকা ধরিয়ে দিচ্ছে।

রাজনীতি-এর সর্বশেষ খবর