আজ বুধবার 12:52 am20 September 2017    ৪ আশ্বিন ১৪২৪    27 ذو الحجة 1438
For bangla
Beta Total Bangla Logo

সউদি বাদশাহ সালমান ইন্দোনেশিয়ায় ‘শাহি’ সফরে যাচ্ছেন

চৈতি খন্দকার, সাব-এডিটর

টোটালবাংলা২৪.কম

প্রকাশিত : ০৫:৩৬ পিএম, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ মঙ্গলবার

সউদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল-সউদ। ছবি : এএফপি

সউদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল-সউদ। ছবি : এএফপি

দীর্ঘ ৪৬ বছরের মধ্যে প্রথম সউদি আরবের কোনো বাদশাহ ইন্দোনেশিয়া সফরে যাচ্ছেন। তাঁর এই সফরের বহরের বাহুল্য নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে।  মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি ২০৭) এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জনসংখ্যায় বিশ্বের বৃহত্তম মুসলিম দেশ ইন্দোনেশিয়ায় দীর্ঘ সময় পর সউদি আরবের কোনো বাদশাহর সফর নিয়ে দেশটিতে উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা যাচ্ছে। তা ছাপিয়ে তাঁর সফরের বহরের আভিজাত্য নিয়ে কথাবার্তা হচ্ছে।

 

ট্রাম্প ও মিডিয়ার মধ্যে প্রকাশ্যে যুদ্ধ চলছে : জয় কার হবে?



অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদারের বিষয় সামনে রেখে চলতি সপ্তাহে নয় দিনের সফরে সউদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল-সউদ ইন্দোনেশিয়ায় যাচ্ছেন।

ইন্দোনেশিয়ার গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, সফরের জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছেন বাদশাহ সালমান। সফরে তাঁর সঙ্গে ৪৫৯ মেট্রিক টন ওজনের মালামাল (কার্গো) থাকছে। মালামালের তালিকায় দুটি মার্সিডিজ-বেঞ্জ এস-৬০০ লিমোজিন ও দুটি বৈদ্যুতিক এলিভেটর রয়েছে।

পণ্যবাহী বিমান কম্পানি পিটি জাসা আংকাসা সেমেস্তার (জাস) অফিসার আডজি গুনাওয়ান বলছে, সউদি বাদশাহর মালপত্র পরিবহনের জন্য তাঁদের কম্পানিকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে মালামাল ইন্দোনেশিয়ায় পৌঁছেছে। সউদি বাদশাহর লাগেজ সামলানোর কাজে ৫৭২ জন কর্মী নিয়োগ করা হয়েছে।

সউদি রাজপরিবারের সদস্যদের সাড়ম্বরে সফরের বিষয়টি নতুন কিছু নয়। ২০১৫ সালে সউদি বাদশাহ তাঁর ওয়াশিংটন সফরের সময় জর্জটাউনের ফোর সিজনস হোটেলের পুরোটাই ভাড়া করেছিলেন। এলাকার অন্যতম বিলাসবহুল ওই হোটেলে ২২২টি কক্ষ রয়েছে।

 

হাইআতু তাহরিরুশ শাম : সিরিয়ায় আসাদের আতঙ্ক! পতন অনিবার্য

 

একই বছর বাদশাহ প্রায় এক হাজার সফরসঙ্গী নিয়ে ফ্রান্সে অবকাশ ভ্রমণে গিয়ে সমালোচনায় পড়েন। এ সময় গোপনীয়তা ও নিরাপত্তার অজুহাতে ফ্রান্সের রিভিয়েরা সমুদ্রসৈকতের একটি অংশ তিন দিন বন্ধ রাখা হয়। একইভাবে বিশাল দলবল নিয়ে চলতি সপ্তাহে সউদি বাদশাহ ইন্দোনেশিয়ায় যাচ্ছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জাকার্তা পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, সউদি বাদশার সফরসঙ্গী হিসেবে প্রায় দেড় হাজার লোক থাকছেন। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন ১০ জন মন্ত্রী, ২৫ জন যুবরাজ ও কমপক্ষে ১০০ জন নিরাপত্তাকর্মী।

সউদি বাদশাহর মতো বিশ্বের আরও অনেক নেতাকে বিশাল বহর নিয়ে বিদেশ সফরে যেতে দেখা গেছে। যেমন ২০১৩ সালে সাব-সাহারান আফৃকা সফরে গিয়েছিলেন তৎকালীন আমেরিকান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তাঁর সঙ্গে ছিল ৫৬টি সহায়ক যানবাহন, ১৪টি লিমোজিন ও মার্কিন সিক্রেট সার্ভিসের কয়েক শ সদস্য।

গারডিয়ানের তথ্য বলছে, ২০১৪ সালে ওবামার ব্রাসেলস সফরের সময় ৯০০ জন সফরসঙ্গী ছিলেন। ছিল ৪৫টি যানবাহন। এ তথ্য নিয়ে প্রশ্ন তোলে হোয়াইট হাউস। নিরাপত্তার কারণে তারা এ বিষয়ে সঠিক তথ্য জানাতে অপারগতা জানায়।