আজ বুধবার 1:04 am20 September 2017    ৪ আশ্বিন ১৪২৪    27 ذو الحجة 1438
For bangla
Beta Total Bangla Logo

অনু গল্প

বিশ্বাস

সেলিনা জাহান প্রিয়া

টোটালবাংলা২৪.কম

প্রকাশিত : ১০:২৭ এএম, ৩ নভেম্বর ২০১৬ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৮:৫৮ পিএম, ৮ নভেম্বর ২০১৬ মঙ্গলবার

সেলিনা জাহান প্রিয়া

সেলিনা জাহান প্রিয়া

-----বিশ্বাস কর ? 
----- করি।
----- প্রমাণ দাও ?
----- কিসের প্রমাণ?
----- এই যে তুমি বিশ্বাস কর তার প্রমাণ ।
---- বিশ্বাস করলে কি প্রমাণ লাগে ? 
---- প্রমাণ ছাড়া কি বিশ্বাসের কোন মূল্য আছে । 
---- দুনিয়ায় অনেক কিছু আছে যা শুধু বিশ্বাস কিন্তু প্রমাণ নেই ? 
----- অহ আলেয়া ! তুমি যে আমাকে বিশ্বাস কর তার প্রমাণ দাও ? 
-----কি প্রমাণ চাও বল বিশ্বাসের ? মিঃ জুরেক্স।
---- সময় হলেই চাইব বিশ্বাসের প্রমাণ । 
----- এখন চাইলে দোষ কোথায় ? 
আজ মন ভাল নাই ? তাই বিশ্বাসের প্রমাণ অন্য দিন নিব ? আমি দেখতে চাই বিশ্বাস কত শক্তিশালী আলো । 
জুরেক্স আমি তোমাকে বিশ্বাস করে ভালবাসি । এই বিশ্বাসের মানে এই না যে, তুমি চাইলে আমাকে তোমার স্ত্রীর মতো ব্যবহার করতে পারবে না। আমি বিশ্বাস রাখি, তুমি আমার একদিন স্বামী হবে। সেই বিশ্বাসে আমি ভালবাসার স্বপ্ন দেখছি তোমাকে । 
এখন তোমার বিশ্বাস অন্য কিছুও হতে পারে । প্রেম করলে তার পর তোমার ইচ্ছামতো ব্যবহার করলে । তার পর ছুঁড়ে ফেললে ।। 
------- ও তাহলে সেই বিশ্বাসে তুমি আমার সাথে কোথাও যেতে চাও না টুরে । 
------- জুরেক্স বাঙালি মেয়েরা প্রেম অন্তরে লালন করে । ইউরোপের আমেরিকার মতো বিছানা গরম করে না। 
------ আলেয়া বিশ্বাস কর কি করে তাহলে যে, আমি তোমার কোন ক্ষতি চিন্তা করি ।
------ জুরেক্স, তুমি বিশ্বাসী বলেই আমি আমার চরিত্রের পরীক্ষা দিতে চাই না । বিশ্বাস তো আমার দ্বারাও তোমার বিশ্বাস নষ্ট হতে পারে । কারণ, প্রকৃতির নিয়ম শক্ত বিশ্বাসে ফাটল ধরাতে পারে। তাই ভালবাসি বলেই দূরে থাকি বুঝলে । 
--------- আলেয়া, আমি তোমাকে একটা প্রশ্ন করব ? 
--------- হ্যাঁ প্রশ্ন করার রাইট তোমার আছে । কারণ ভালবাসায় তো শুধু প্রশ্ন ? 
--------- আলেয়া, তুমি যাকে বাবা বলে ডাক সে তো তোমার বাবা না ।
--------- জন্ম দিলেই কি বাবা হয় মানুষ । সেই মানুষটা তার মাথার ঘাম পায়ে ফেলে আমাকে লালন-পালন করেছে । যার খাবার খেয়ে বড় হয়েছি । এখন আমার শরীরে প্রতি কণা রক্ত তার দেওয়া খাবারে সৃষ্টি হয়েছে । সেই আমার বাবা । এটাই আমার উত্তর । কে আমার মাকে প্রেমের নামে ধোঁকা দিয়েছে তার নাম লিখে আমি আমাকে ছোট করতে পারব না । যে আমাকে লালন করেছে সেই আমার পিতা । 
-------- কিন্তু আলো সমাজ জানতে চায় ? আমি তো এই সমাজের মানুষ । 
------- জুরেক্স এই বিশ্বাসে আমাকে ভালবেসেছ । তাহলে শুন কে আমার জন্মদাতা সেটা আমি জানি । একজন প্রতারকের নাম মুখে নিজের মুখ নষ্ট করতে চাই না।
------- বাহ ! আলেয়া সে তোমার জন্মদাতা । শুনেছি তোমার জন্য নাকি মামলা করবে । কারণ সে তোমাকে এখন তার মেয়ের পরিচয় দিতে চায় ।
------- চাইবেই তো। কারণ তার তো অন্য কোন সন্তান নাই । 
------- হাজার হলেও আলেয়া এটা তোমার বিশ্বাস করতে হবেই, সে তোমার বাবা ।
------ না সে আমার বাবা না, শুধু জন্মদাতা । 
------- তাহলে তো তুমি তার মতোই সেই জেদি রাগি হলে ।
------- শুন জুরেক্স। আমি যার ডি এন এ , আমি তো তার মতোই হব । এটাই স্বাভাবিক। তোমাকে একটা কথা বলি জুরেক্স, তুমি  তোমার জন্মদাতা বাপের মতো হও নাই ।
------- তুমি কি বলতে চাও ? আমি তোমার মতো ...............।।
-------- জুরেক্স আমি যে জারজ এটা আমি জানি । আমাকে মনে করে দিতে হয় না । 
-------- না কথাটা আমি এভাবে বলি নাই । 
--------- জুরেক্স যে ভাবেই বলল সূর্য কিন্তু একটাই । 
--------- আলেয়া আমার বাবা একটু সহজ সরল মানুষ । আমি না হয় একটু জটিল । তাই বলে তুমি আমাকে এভাবে বলতে পার না। 
-------- শুন জুরেক্স, আমার মা সরল সুজা ছিল বলেই ঠকেছে । তাই বলছি, তোমার বাবাও তো সরল সুজা দেখ। কোথাও ঠকেছে কি না? 
------- আমার মাকে নিয়ে তোমার এভাবে কথা বলতে গায়ে লাগে না? 
------- হবু শাশুড়ি একটু পরীক্ষা করে নেই । যে তার ছেলেটা সুযোগ পেলেই কেন ডেটিং এ নিতে চায় । ডি এন এ ঠিক আছে কি না ? 
আলেয়ার কথায় খুব কষ্ট পায় জুরেক্স । আলেয়াও মনে মনে কষ্ট পায় জুরেক্সের কথায়। কেউ কাউকে বুঝতে দেয় না । দু জনেই একটা মিষ্টি হাসি দিয়ে বিদায় নেয় । 


জুরেক্সের মা কিছুতেই আলেয়ার মায়ের জন্য আলেয়ার নাম শুনতে পারে না। সবসময় জুরেক্সকে বলে, একটা নষ্ট মহিলার মেয়ের প্রেমে পড়েছিস । এমন নষ্ট মহিলার মেয়ে নষ্টই হয় । মেয়েটার কোন লজ্জা সরম নাই । জুরেক্স মনে-প্রাণে বিশ্বাস করে, এতে 
আলেয়ার কোন দোষ নাই । তার মায়ের কোন দোষ নাই । একটা বিশ্বাসের শুধু অবমুল্যায়ন হয়েছে । এমন ভুল সে করতে চায় না। এটাই বিশ্বাস ।


জুরেক্স মায়ের কথা ভালভাবে নেয় না। একদিন বিকালে জুরেক্স বাসার বারান্দায় মায়ের সাথে বিকালের চা খাচ্ছে । জুরেক্সের মা বলল
------------ বাবা একটা কথা বলি, তোর বাবার টাকা-পয়সা-ব্যবসা আমার নিজের টাকা-পয়সা-ব্যবসা সব মিলিয়ে আমাদের সামাজিক অবস্থার সাথে আলেয়ার পরিবার মিলে না। তা ছাড়া সমাজ বলে একটা কথা আছে । বাবা ঐ মেয়ের অন্য কোথাও বিয়ে হলে ১০/২০ লাখ টাকা লাগলে আমি দিয়ে দিব । 


হাতের চা শেষ করে জুরেক্স বলল, মা একটু বস আমি আসছি ঘর থেকে । জুরেক্স ঘরে যায় । ঘর থেকে একটা সাদা খাম এনে মাকে দিয়ে বলে, মা এই খাম দেখার পর আশা করি এতে যা লেখা আছে, তা দেখে তুমি আর আমাকে আলেয়াকে বিয়ে করতে না করবে না । জুরেক্স মায়ের সামনে থেকে চলে যায় । জুরেক্সের মা খাম খুলে দেখে একটা মেডিক্যাল রিপোর্ট । তাতে একটা ডি এন এ রিপোর্ট । যাতে জুরেক্স এর পিতার সাথে কোন মিল নাই । একটা ছোট চিঠি লেখা জুরেক্সের হাঁতে । প্রিয় মা, আমি জানতে চাই না, কে আমার পিতা। তবে যাকে আমি জন্মের পর বাবা বলে জেনেছি, তাকে আমি এটা বলে কষ্ট দিয়ে তার বিশ্বাস নষ্ট করতে পারব না। মা প্রতিটা মানুষের ভালবাসা তার বিশ্বাসে বেঁচে থাকুক । আজ আমি আলেয়াকে বিয়ে করব। আলেয়া জানে, আমিও তার মতো কোন ভালবাসার সৃষ্টি । মা আমাদের জন্য দোয়া কর । কারণ আমরা আমাদের ভালবাসাকে প্রতারণা করতে চাই না। এটাই শিক্ষার বিশ্বাস ।।

 

সেলিনা জাহান প্রিয়া : অতিথি লেখক