আজ বৃহস্পতিবার 7:21 am09 July 2020    ২৪ আষাঢ় ১৪২৭    18 ذو القعدة 1441
For bangla
Total Bangla Logo

শায়খুল হাদিসের মজলিসে অস্থিরতা চরমে, ইস্যু পুত্র মামুন

স্টাফ রিপোর্টার, ঢাকা

টোটালবাংলা২৪.কম

প্রকাশিত : ০৬:১৩ পিএম, ১৭ জুলাই ২০১৯ বুধবার

শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হকের

শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হকের

শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হকের অনুসারী বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভেতরে চরম অস্থিরতা বিরাজ করছে। অস্থিরতার শুরু অনেক আগ থেকে। দলটিতে শায়খুল হাদিসপুত্র মাওলানা মামুনুল হক বাংলাদেশ যুবমজলিস নামে পৃথক সংগঠন করাকে কেন্দ্র করেই এ অস্থিরতার সূত্রপাত। দীর্ঘদিনের সে অস্থিরতা কিছুটা কাটিয়ে ওঠতে না ওঠতেই মাওলানা মামুনুল হকের গ্রুপের লোকেরা বাংলাদেশ খেলাফত ছাত্রমজলিস নামে নতুন কার্যক্রম শুরু করেছেন। এতে করে, দলটির ভেতরে যুবমজলিস গঠনকেন্দ্রিক সমস্যা আরও প্রকট হয়ে দেখা দিয়েছে।

 


বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সহযোগী ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্রমজলিস। ২০০৫ সালের ২২ মে খেলাফত মজলিস দুই ভাগে বিভক্ত হওয়ার আগে দেশের চতুর্থ বৃহত্তর এবং খুবই সম্ভাবনাময় ছাত্রসংগঠন ছিল বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্রমজলিস। নব্বুইয়ের দশকে রাজপথে নতুন দিনের আজান দিয়েছিল বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্রমজলিস। সে আজানে কেঁপে ওঠেছিল সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজনির্ভর নোংরা ছাত্ররাজনীতির অলি-গলি-পথ-ক্যাম্পাস। জ্ঞান অর্জন, চরিত্র গঠন ও সমাজ বিপ্লবের স্লোগানে মুগ্ধ হয়েছিল দেশের লাখো ছাত্র-তরুণ জনতা। সেই ছাত্রমজলিসের অভিভাবক সংগঠন খেলাফত মজলিসে ভাঙনের পর ২০০৫ সাল থেকে বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্রমজলিসেরও দুটি ব্যানার ঝুলতে থাকে। থমকে যায় সম্ভাবনার পথচলা। দুই খেলাফত মজলিসের ভেতরেই এ নিয়ে আলোচনা-পর্যালোচনা চলে। শায়খুল হাদিসের অনুসারী বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস সিদ্ধান্ত নিয়েই বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্রমজলিস নামে কঠোর অবস্থান নেয়। এ নামেই তারা নিজেদের সহযোগী ছাত্র সংগঠন পরিচালনায় অটল থাকেন।

 


গত ১৩ জুলাই শনিবার ঢাকার গুলিস্তানে কাজী বশির মিলনায়তনে ছিল বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সাবেক আমির পৃন্সিপাল মাওলানা হাবীবুর রহমানের স্মরণে জাতীয় কনফারেন্স। এতে দলটির বহু ভক্ত-অনুসারী-সমর্থক অংশ নেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালও অংশ নেন। গুলিস্তানের এ কনফারেন্স উপলক্ষে শায়খুল হাদিসপন্থি খেলাফত মজলিসের সহযোগী ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্রমজলিসের সঙ্গে রীতিমতো যুদ্ধই করেছে শায়খুল হাদিসপুত্র মাওলানা মামুনুল হকের অনুসারী বাংলাদেশ খেলাফত ছাত্রমজলিসের কিছু সাইনবোর্ড। পাশাপাশি বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্রমজলিস এবং বাংলাদেশ খেলাফত ছাত্রমজলিসের ব্যানার-ফেস্টুন দেখা গেছে। এ নিয়ে দলের ভেতরে সমালোচনার ঝড় বইছে। দলটিতে আবারও অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। জানা গেছে, চরম এ অস্থিরতার পরিণামে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসকে সাইনবোর্ডও হয়তোবা হারানো লাগতে পারে!

 


দলের অনুসারীরারা প্রকাশ্যেই তীব্র সমালোচনা করছেন মাওলানা মামুনুল হকের। অনেকে এ কথাও বলছেন, মামুনুল হক শায়খুল হাদিসের পুত্র না হলে নেতাগিরি দূর থাক, ক্ষেতাগিরি করেও পার পেতেন না। প-িত দেশে এবং দলের ভেতরে অনেকই আছেন, তারা শায়খুল হাদিসের পুত্র-সন্তান-আত্মীয় না হওয়ায় তাদের কোনো মূল্যায়ন নেই। মাওলানা মামুনের প্লাস পয়েন্ট এটাই, তিনি শায়খুল হাদিসের পুত্র! আরও কঠোর এবং কঠিনতর সমালোচনায় এখন মরহুম শায়খুল হাদিসকেও টানা হচ্ছে। এতে শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হকের ছাত্র-ভক্ত-অনুসারীরা অন্তরে কষ্ট অনুভব করছেন। পুত্র মামুনুল হকের অন্তরে কষ্ট লাগে না আনন্দে তিনি এসব করেন-তাতো জানেন মাওলানা মামুনুল হকই।

 


বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের এ চরম অস্থিরতার ঢেউ গিয়ে লেগেছে আহমদ আবদুল কাদের অনুসারী খেলাফত মজলিসেও। তাদের মধ্যেও এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে।

 

#

রাজনীতি-এর সর্বশেষ খবর