আজ শুক্রবার 8:05 am10 July 2020    ২৫ আষাঢ় ১৪২৭    19 ذو القعدة 1441
For bangla
Total Bangla Logo

ঢাকায় চরমোনাইর পীর

দেশে ইসলাম ও মুসলমানের দুর্দিন চলছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা

আলজাজিরাবাংলা.কম

প্রকাশিত : ০৮:০০ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ শনিবার | আপডেট: ১২:২২ পিএম, ২ অক্টোবর ২০১৬ রবিবার

সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করিম

সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করিম

আজ শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর কাওরান বাজারস্থ কিচেন মার্কেটের সামনে অনুষ্ঠিত ইসলামী মহাসম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মুসলমান অধ্যুষিত দেশে হিন্দুয়ানী কালচার শুরু হয়ে গেছে। এখন পশুর বিয়ে দেয়ার মত ঘটনা ঘটিয়ে হিন্দু সংস্কৃতি জানান দিচ্ছে। এ ধরনের হিন্দু সংস্কৃতি রুখে দিতে হবে।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, নৈতিকতা বিবর্জিত তৌহিদী জনতার সেন্টিমেন্টকে পাশ কাটিয়ে একতরফাভাবে শিক্ষানীতি ও শিক্ষাআইন চূড়ান্ত করার ক্ষেত্র প্রস্তুত করা হচ্ছে। হিন্দুত্ববাদ ও নাস্তিক্যবাদ প্রতিষ্ঠার বিতর্কিত সিলেবাস সংশোধন করা ছাড়া নতুন বছরের বই বিতরণের চেষ্টা করলে কারোর জন্যই মঙ্গল হবে না।


পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, মানুষের যদি প্রকৃত আদর্শ শিক্ষা ও ধর্মীয় মূল্যবোধ না থাকে তাহলে মানুষ কোনো অন্যায়কে অন্যায় বলে মনে করে না। সরকার যদি এর প্রতি গুরুত্ব দিয়ে কার্যকর ব্যবস্থা না গ্রহণ না করে তাহলে পরিণামে একদিন চরম মুল্য দিতে হবে। তাই দেশের স্বার্থে এসব দুষ্ট চক্রকে ধ্বংস করা সরকারের একান্ত দায়িত্ব বলে আমরা মনে করি ।

তিনি বলেন, সন্ত্রাস ও উগ্রতা বিস্তারে প্রচলিত ধর্মহীন শিক্ষাই দায়ী। দেশময় জঙ্গিবাদের হামলাকে কেন্দ্র করে সর্বত্র এক অজানা ভয় ও আতঙ্ক বিরাজ করছে। জনমনে ইসলাম সম্পর্কে বিরুপ ধারণা সৃষ্টি হচ্ছে।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, সিলেবাস থেকে অনেক মুসলিম কবি-সাহিত্যিকদের ইসলামী ভাবধারায় রচিত প্রবন্ধ, গল্প ও কবিতা বাদ দেয়া হয়েছে। এর পরিবর্তে পাঠ্য বইতে নতুন করে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে হিন্দু ধর্ম সম্পর্কীয় বিভিন্ন বিষয়াদী। অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে এমন সব প্রবন্ধ, গল্প ও কবিতা যা আমাদের স্বাধীতনাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে। যা আমাদের মুসলিম সমাজ ও সভ্যতাকে চ্যালেঞ্জ করে। এ ধরনের নাস্তিক্যবাদী শিক্ষা বহাল রেখে দেশকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিমুক্ত করা যাবে না।

সম্মেলনে অন্যান্যের মধে নসিহত পেশ করেন জামিয়া কারীমিয়ার সিনিয়র মুহাদ্দিস মুফতি মুহাম্মদ ওয়ালীউল্লাহ, হাফেজ মাওলানা খলিলুর রহমান, আম্বরশাহ জামে মসজিদের খতীব মাওলানা মাজহারুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন দেওয়ান আরিফুল ইসলাম ফারুক, হাজী শাহ মোঃ কামাল মানিক, হাজী লোকমান হোসেন, মোঃ জহিরুল ইসলাম। সম্মেলন পরিচালনা করেন মোঃ ইলিয়াস হোসাইন।

রাজনীতি-এর সর্বশেষ খবর