আজ বৃহস্পতিবার 10:03 pm21 September 2017    ৬ আশ্বিন ১৪২৪    29 ذو الحجة 1438
For bangla
Beta Total Bangla Logo

জুমার আগেই মূর্তিটি ভাঙুন

তাকরিম হাসান, বিশেষ প্রতিনিধি

টোটালবাংলা২৪.কম

প্রকাশিত : ১০:২৭ এএম, ১৩ এপ্রিল ২০১৭ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০১:০৮ এএম, ১৫ জুন ২০১৭ বৃহস্পতিবার

বাংলাদেশ ইসলামিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা...

বাংলাদেশ ইসলামিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা...

রাত পোহালেই ১৪ এপৃল বা পয়লা বৈশাখ। বাংলা নতুন বছরের প্রথম দিন শুক্রবারে বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইটে বাংলাদেশ ইসলামিক ইউনিয়ন বিক্ষোভ সমাবেশ ও গণমিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। এতে আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টিসহ ইসলামপন্থী ও বামপন্থী সব দল, ধর্ম, বর্ণ, দেশি-প্রবাসীসহ বিশ্বের ১৭১টি দেশের মজলুম মানুষের কাছে বাংলাদেশসহ বিশ্বজুড়ে সকল জালিম অপশক্তির বিরুদ্ধে গর্জে ওঠতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও গণমিছিলে শরিক হওয়ার দাওয়াত দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রায় ৮ কোটি হ্যান্ডবিল বিলি করা হয়েছে।

 

হাসানুল কাদির

 

দেশ ও ইসলাম রক্ষায় অভিশপ্ত ইহুদিদের এদেশীয় বাণিজ্যিক এজেন্ট বসুন্ধরা, যমুনা ও প্রাণ আরএফএল গ্রুপ-এর পণ্য বর্জন, বাংলাদেশসহ বিশ্বজুড়ে তাদের কার্যক্রম নিষিদ্ধ করা, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে বর্তমান অসুস্থ খতিবের সঙ্গে আরও দুই জন খতিব নিয়োগ, পবিত্র বায়তুল মোকাদ্দাস ইহুদিদের নিয়ন্ত্রণমুক্ত করতে বিশ্বজুড়ে আপসহীন আন্দোলন গড়ে তোলা, অবিলম্বে অভিশপ্ত কাদিয়ানিদের অমুসলিম ঘোষণার মতো গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি দাবির পাশাপাশি বিশেষ করে সুপৃম কোর্ট এলাকা থেকে গৃক দেবির মূর্তি ভাঙার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ইসলামিক ইউনিয়ন শুক্রবার (পয়লা বৈশাখে, ১৪ এপৃল) জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইটে বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশ ও গণমিছিলের আয়োজন করেছে।

 

আরও পড়ুন : শেখ হাসিনার সব দাবি অক্ষরে অক্ষরে মানতে হবে ইনডিয়াকে

 

কর্মসূচি সফল করতে বিশ্বের ১৭১টি দেশ থেকে ইতিমধ্যে বাংলাদেশ ইসলামিক ইউনিয়নের কর্মী-সমর্থকরা ঢাকায় এসে পৌঁছেছেন। জুমার নামাজের আগেই বাংলাদেশের প্রতিটি গ্রাম-ওয়ার্ড-ইউনিয়ন-উপজেলা-জেলা থেকে বাংলাদেশ ইসলামিক ইউনিয়নের সদস্য-সমর্থকরা বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইটে এসে হাজির হবেন। বেশির ভাগ সদস্য-সমর্থকরা ইতিমধ্যে ঢাকায় এসে পৌঁছেছেন।

 

আরও পড়ুন : আবার পড়ুন, জানমাল সব কেড়ে নেয় কালেমা জামায়াত

 

মেধাবী আলেম, বরেণ্য মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, বাংলাদেশ ইসলামিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা ও আল-কায়েদার মিডিয়া এবং গোয়েন্দা বিষয়ক উপদেষ্টা হাসানুল কাদির দেশ ও বিশ্ববাসীর উদ্দেশে বিক্ষোভ সমাবেশে গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ দিবেন। বক্তব্য রাখবেন আরও অনেকেই। গণমিছিলে নেতৃত্ব দিবেন জনাব হাসানুল কাদির। তিনি সকলকে কর্মসূচি সফল করতে সবরকম সহযোগিতা করার অনুরোধ করেছেন। সঙ্গে সকলের দোয়াও চেয়েছেন জনাব হাসানুল কাদির। টোটালবাংলা২৪ ডটকমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমেকে তিনি বলেন, সুপৃম কোর্ট এলাকা থেকে গৃক দেবির মূর্তি সম্মানজনকভাবে সরিয়ে নেওয়ার আলটিমেটাম দিয়েছিলাম ১ এপৃল। সেই আলটিমেটাম কুখ্যাত প্রধান বিচারপতি গ্রহণ করে সম্মানজনকভাবে মূর্তিটি না সরানোয় আমরা শুক্রবারের কর্মসূচি দিয়েছি। ইতিমধ্যেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও এই অভিশপ্ত মূর্তিটি পছন্দ করেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন। শুক্রবার জুমার নামাজের আগেই প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে এই মূতির্টি না ভাঙলে বাংলাদেশ ইসলামিক ইউনিয়ন আইন হাতে তুলে নিতে বাধ্য হবে। এজন্য সশস্ত্র লড়াইয়ের প্রয়োজন হলে আল-কায়েদার গোল্ডেন স্কোয়াড প্রস্তুত রয়েছে বলে তিনি গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।