Total Bangla Logo
For bangla আজ শুক্রবার 2:48 pm
28 July 2017    ১৩ শ্রাবণ ১৪২৪    04 ذو القعدة 1438

পরামর্শ সভায় ফয়জুল করীম

কওমি সনদ নিয়ে এ সরকারও নোংরা রাজনীতি করছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা

টোটালবাংলা২৪.কম

প্রকাশিত : ০৮:৫৯ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০১৬ শনিবার

কওমি সনদ নিয়ে এ সরকারও নোংরা রাজনীতি করছে

কওমি সনদ নিয়ে এ সরকারও নোংরা রাজনীতি করছে

বাংলাদেশ কুরআন শিক্ষা বোর্ডের সহ-সভাপতি মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম বলেছেন, কওমি মাদরাসা শিক্ষা সনদের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি কওমি সন্তানদের মৌলিক অধিকার। এটি কারো দয়া বা করুণা নয়। অতীতের সব সরকারই কওমি মাদরাসা নিয়ে নোংরা রাজনীতি করেছে। বর্তমান সরকারও একই পথে হাঁটছে।

আজ শনিবার (২২ অক্টোবর ২০১৬) সকালে পুরানা পল্টনের আইএবি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এক পরামর্শ সভায় তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ কুরআন শিক্ষা বোর্ড আয়োজিত “কওমি মাদরাসা সনদের স্বীকৃতি বিষয়ক” এ সভায় তিনি সভাপতি ছিলেন।

মুফতি ফয়জুল করীম বলেন, এ সরকার মুসলমানের ঈমানধ্বংসী সিলেবাস দিয়ে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে নাস্তিক্য ও হিন্দুত্ববাদের দিকে নিয়ে যাওয়ার সকল আয়োজন সম্পন্ন করেছে। তিনি খুব দ্রুত ঈমানবিনাশী এ সিলেবাস বাতিলের দাবি করেন।

তিনি বলেন, কওমি মাদরাসা সনদের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি নিয়ে দেশের কওমি আলেমদের মাঝে ঐক্য প্রতিষ্ঠিত হতে হবে। না হলে এদেশের সহিহ ধারার ইসলামি শিক্ষা  ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তিনি কওমি সনদ নিয়ে রাজনীতি না করতে সকল পক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

ফয়জুল করীম বলেন, সরকার কওমি মাদরাসা বিষয়ে আন্তরিক হলে কওমি মাদরাসার স্বকীয়তা ও স্বাতন্ত্র্য বজায় রেখেই সনদের স্বীকৃতি দিবে। এ স্বীকৃতির নামে কওমি মাদরাসাগুলো নিয়ন্ত্রণের যেকোনো কু-মতলব বরদাশত করা হবে না।

সভায় আরো বক্তব্য দেন বোর্ডের নির্বাহী সভাপতি মুফতি সৈয়দ নুরুল করীম, মহাসচিব মাওলানা নূরুল হুদা ফয়েজী, হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, জাতীয় শিক্ষক ফোরামের আহ্বায়ক অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের সদস্যসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, বোর্ডের সিনিয়র প্রশিক্ষক মাওলানা আব্দুস সাত্তার হামিদী, মাওলানা মিজানুর রহমান নোমানী। সভা পরিচালনা করেন মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক জেহাদী।

বোর্ডভুক্ত মাদরাসাগুলোর প্রতিনিধিদের মধ্যে বক্তব্য দেন জামিয়া কারিমিয়ার পৃন্সিপাল মাওলানা মকবুল হোসাইন, জামিয়া সাঈদিয়া কারিমিয়ার পৃন্সিপাল হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, ফজলুল উলুম জুরাইনের মুহতামিম মুফতি ওমর ফারুক, জামিয়া ইসহাকিয়া জুরাইনের মুহতামিম মাওলানা আবদুল হক, জামিয়া বাহরুল উলুম ঢাকার পৃন্সিপাল মুফতি কেফায়েতুল্লহ কাশফী, দাওয়াতুস-সুন্নাহ’র পৃন্সিপাল মাওলানা আতাউর রহমান আরেফী, মারকাজুত তাকওয়ার পৃন্সিপাল মাওলানা হাবীবুর রহমান মিসবাহ, জামিয়া মদীনাতুল উলুম-এর মুহতামিম মুফতি ইজহারুল ইসলামসহ একশরও বেশি মাদরাসার প্রতিনিধি।-প্রেস রিলিজ