আজ বৃহস্পতিবার 10:04 pm21 September 2017    ৬ আশ্বিন ১৪২৪    29 ذو الحجة 1438
For bangla
Beta Total Bangla Logo

আগামী বছর নতুন বই বিতরণ করতে দিবে না ইসলামী আন্দোলন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা

টোটালবাংলা২৪.কম

প্রকাশিত : ১২:৩৮ এএম, ৩০ অক্টোবর ২০১৬ রবিবার | আপডেট: ০৬:১৭ পিএম, ১২ নভেম্বর ২০১৬ শনিবার

আগামী বছর নতুন বই বিতরণ করতে দিবে না ইসলামী আন্দোলন

আগামী বছর নতুন বই বিতরণ করতে দিবে না ইসলামী আন্দোলন

অবিলম্বে শিক্ষানীতি সংশোধন করতে হবে। পাঠ্যবই থেকে ইসলামবিরোধী বিষয়গুলো বাদ দিতে হবে। তা না হলে আগামী শিক্ষাবর্ষে নতুন বই বিতরণ করতে দেওয়া হবে না। সরকারকে এমনই হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

দলটির নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম ঢাকায় আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

আজ (২৯ অক্টোবর ২০১৬) শনিবার বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা সিটি উত্তর ও দক্ষিণের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, এই সরকার সাধারণ মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা দিতে চরম ব্যর্থ।

তিনি বলেন, দেশকে ধর্মহীন করার নীলনকশা বাস্তবায়নে বিতর্কিত শিক্ষানীতি প্রণয়ন করেছে। শিক্ষা সিলেবাস থেকে ধর্মীয় মূল্যবোধ মুছে দেওয়ার হীন পাঁয়তারা করছে। সিলেবাস সংশোধন করে হিন্দুত্ববাদী জাতিধ্বংসী বিষয়সমূহ পাঠ্যবই থেকে বাদ না দিলে আগামী শিক্ষাবর্ষে নতুন বই বিতরণ করতে দেয়া হবে না।

ফয়জুল করীম বলেন, এখন দেশে এক অস্থির অবস্থা বিরাজ করছে। দুর্নীতি, ঘুষ, খুন ও লুটপাটের মহোৎসব চলছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম দিন দিন বাড়ছেই। ভোগ্যপণ্যের দাম সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে। মানুষের এখন নাভিশ্বাস। সরকারি মদদে একশ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী সিনডিকেট করে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে বাজার অস্থিতিশীল করে তুলেছে। মধ্য-নিন্মবিত্ত ও খেটে খাওয়া মানুষ চরম দুঃখে-কষ্টে দিন পার করছে।

তিনি অারো বলেন, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধে সরকার ব্যর্থ। সাধারণ মানুষের মাঝে সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ বিরাজ করছে। সরকার অবিলম্বে এই সিনডিকেট ভেঙে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে এনে বাজার স্থিতিশীল করতে ব্যর্থ হলে চরম মূল্য দিতে হবে।

দলটির ঢাকা সিটি দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতি ছিলেন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন। বক্তব্য দেন সাংগঠনিক সম্পাদক প্রকৌশলী আশরাফুল আলম, প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, সিটি উত্তরের সভাপতি অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, আলহাজ আলতাফ হোসেন, আলহাজ হারুন আর রশিদ, মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, এইচ এম ছিদ্দিকুর রহমান, মাওলানা বাছির উদ্দিন মাহমুদ, অধ্যাপক ফজলুল হক মৃধা, মাওলানা এইচ এম সাইফুল ইসলাম, মাওলানা জাকারিয়া, মাওলানা শেখ মুহা. নূরউন নাবী, ছাত্রনেতা হাসিবুর রহমান প্রমুখ।  

বিক্ষোভ সমাবেশের পর একটি মিছিল রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গিয়ে মিছিল শেষ হয়।-প্রেস রিলিজ